আপনি অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা করেন কিনা এটা জানার সাইকোলজিক্যাল টেস্ট

আপনি কি অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা করেন ?অতিরিক্ত টেনশনের কারনে কি আপনার ব্যক্তিগত ও সামাজিক জীবনে প্রভাব বিস্তার করছে ?এই টেস্টটি বের করে আনবে আপনার ANXIETY লেবেল মানে ( দূশ্চিন্তা বা টেনশন করার প্রবণতা আপনার মধ্যে কতটা ) আর এই প্রবণতা গুলো আপনার জীবনে কতটা প্রভাব বিস্তার করে।


এখানে আপনাকে কিছু প্রশ্ন করা হবে যার প্রতিটি প্রশ্নের জন্য কিছু নির্দিষ্ট উত্তর দেয়া থাকবে, প্রতিটি প্রশ্নের জন্য কিছু নির্দিষ্ট মার্ক থাকবে।
আপনার পাওয়া টোটাল মার্ক এর উপর নির্ভর করবে আপনার ফলাফল।

চলুন টেস্ট টি শুরু করা যাক ………..

আমি নিজেকে রিল্যাক্স রাখতে পারি
ক, প্রায় সব রকম সিচুয়েশনে
খ, এটা আমার জন্য কঠিন
গ, খুব কম সময়ই আমি এটা করি
ঘ, না আমি এমনটা পারিনা

০, ৬, ৮, ১০

আমার সাথে খারাপ কিছু ঘটলে আমি/আমার

ক, কখনোই ভুলে থাকতে পারিনা
খ, ভুলে থাকতে চেষ্টা করি
গ, তা মনে রাখি না
ঘ, বারবার ‌‌বিষয়টি মনে আসে

১০, ৪, ০, ৭

আমি কোন বিষয় নিয়ে অকারণে ভয় পাই !!
ক, সবসময়ই
খ, বেশিরভাগ সময়ই
গ, কখনোই না
ঘ, কিছু কিছু সময়

১০,৮,০,৩

আমি ততটুকুই খুশি থাকি যতটা আশপাশের লোকজন খুশি থাকে
ক, সম্পূর্ণ সত্য
খ, অনেক ক্ষেত্রেই ঠিক
গ, না এটা ঠিক নয়
ঘ, সম্পূর্ণ মিথ্যা

১০, ৭, ২, ০

কেউ আমাকে ছোট করে কিছু বললে আমি সারাদিনই ঐ বিষয়ে ভাবতে থাকি !!
ক, এটা পুরোপুরি ঠিক
খ, বেশিরভাগ সময়ই এরকম হয়
গ, না আমি এসবচিন্তা একেবারেই করিনা
ঘ, খুব কম সময়ই এরকম হয়

১০, ৮, ০, ২

আমি খুব সহজেই আতংকিত , বিস্মিত, সতর্ক হয়ে যাই
ক, সম্পূর্ণ সত্য
খ, সত্য
গ, কখনো কখনো
ঘ, মিথ্যা
ঙ, সম্পূর্ণ মিথ্যা

১০, ৮, ৪, ২, ০

আপনি কোলাহল, অন্ধকার , অপরিচিত লোক, ট্রাফিক এই চারটি বিষয়ের মোট কয়টির থেকে দূরে থাকতে চান ?
ক, একটি
খ, দুটি
গ, তিনটি
ঘ, চারটি

২ , ৫, ৮, ১০

আপনি আপনার জীবনে কতটা satisfied ? এটিকে নাম্বারিং করলে আপনি নিজেকে কত দেবেন ?
ক, ৯০%
খ, ৬০%
গ, ৩০%
ঘ, ১০%

০, ৩, ৬, ১০

আমি যাই করি না কেন চিন্তামুক্ত থাকতে পারিনা
ক, সম্পূর্ণ সত্য
খ, সত্য
গ, সম্পূর্ণ মিথ্যা
ঘ, মিথ্যা

১০, ৮, ০, ২

শ্বাস প্রশ্বাস দ্রুত হওয়া, হার্ডবিট বেড়ে যাবার মত বিষয়গুলো আমি বারবার এক্সপেরিয়েন্স করি
ক, সম্পূর্ণ মিথ্যা
খ, সম্পূর্ণ সত্য
গ, মিথ্যা
ঘ, সত্য

০, ১০, ২, ৭

আমি কি করেছি এটা নিয়ে খুব বেশি চিন্তা করি
ক, সম্পূর্ণ মিথ্যা
খ, মিথ্যা
গ, সম্পূর্ণ সত্য
ঘ, সত্য

০, ২, ১০, ৮

আপনার মনোযোগের সাথে কোন কাজ করার ক্ষমতাকে আপনি ১০০ তে কত মার্ক দেবেন ?
ক, ১০
খ, ৩০
গ, ৬০
ঘ, ৯০

১০, ৭, ৩, ০

আপনি স্বপ্নের মধ্যে কি উপর থেকে পড়ে যাওয়া , খারাপ স্বপ্ন দেখা , এই ধরনের বিষয় গুলো এক্সপেরিয়েন্স করেন ?
ক, দুই একদিন পরপরই আমি এসব দেখি
খ, সপ্তাহে অন্তত একবার হলেও এরকম স্বপ্ন আমি দেখি
গ, খুব কম সময়
ঘ, কখনোই না

১০, ৬, ২, ০

আমি সেই সব গুলো বিষয় নিয়ে চিন্তা করি যেগুলো আমি অর্জন করতে পারিনি ?
ক, হাঁ আমি সব সময় চিন্তা করি
খ, মাঝেমধ্যে এগুলো চিন্তায় আসে
গ, না আমি আমার ব্যর্থতা নিয়ে চিন্তা করি না
১০, ৫, ০

ভবিষ্যতে আমার সাথে কি হবে এটি নিয়ে আমি চিন্তিত থাকি !
ক, সম্পূর্ণ সত্য
খ, সত্য
গ, কিছুটা সত্য
ঘ, মিথ্যা
১০, ৬, ৩, ০

101 থেকে 150
আপনার পয়েন্ট যদি 101 থেকে 150 এর মধ্যে হয় তবে আপনি খুব বেশি দূশ্চিন্তা করেন ।
আপনার আপনজনদের জন্য আপনি সবসময় চিন্তিত থাকেন। হয়তো আপনি একটু বেশিই আবেগী মানুষ। তবে আপনার ইমোশনের প্রতি সম্মান রেখেই বলতে হয় বাস্তবে অতিরিক্ত চিন্তা করা বা টেনশন করা আপনার নিজের ও আপনার আশেপাশের লোকেদের জন্য শুধু ক্ষতিই বয়ে আনবে। পৃথিবীতে প্রতিদিন দূর্ঘটনায় যত মানুষ মারা যায় তার থেকে বেশি মানুষ অতিরিক্ত চিন্তা, মানুষিক যন্ত্রনা , হাই ব্লাড প্রেশার , ও ডিপ্রেশন এর কারণে মারা যায়। এই সব দিক বিবেচনা করে ছোট খাট বিষয় নিয়ে অতিরিক্ত চিন্তা অবশ্যই আপনাকে পরিহার করতে হবে।

51 থেকে 100
আপনার পয়েন্ট যদি 51 থেকে 100 এর মধ্যে হয় তবে আপনার টেনশন করার প্রবণতা অন্য সব সাধারণ মানুষের মতই। আপনি অন্য আর দশটা লোকের মতই আশপাশের পারিপার্শ্বিকতার সাথে নিজেকে মানিয়ে নিতে চেষ্টা করেন। তবে স্বাভাবিক জীবন যাপনের বাইরে কিছু ঘটলে আপনি বেশ চিন্তাগ্ৰস্থ হয়ে পরেন। আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে জীবনের প্রতিটি স্তরে চড়াই উৎরাই থাকবেই একারনে আপনি অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা কখনোই করবেন না, কারণ অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা ভয়কে জন্ম দেয়। আর এই ভয় জীবনের সব সম্ভাবনাকে ধ্বংস করে দেয়।

0 থেকে 50
আপনার পয়েন্ট এর রেশিও বলছে আপনার মধ্যে দুশ্চিন্তা বা টেনশন করার প্রবণতা খুবই কম। এটা সম্ভবত আপনার পজেটিভ মনোভাব ও স্ট্রং পারসোনালিটির ফলাফল। এটা প্রতিফলন ঘটায় আপনার মধ্যকার হাই সেল্ফ স্টিম কে। আপনার জীবনকে দেখার দৃষ্টিভঙ্গি সাধারণ মানুষের থেকে অনেক উন্নত। আপনার জটিল যেকোনো বিষয়কে সহজ করার একটা খুব ভালো গুন রয়েছে । যার ফলে আপনার আশেপাশের মানুষ তাদের সব সমস্যা সমাধানে আপনার পরামর্শ নিয়ে থাকে।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button