করোনা সংকটে বাংলাদেশ পুলিশের অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন।

মুজিববর্ষের শ্লোগান,” পুলিশই জনতা,জনতাই পুলিশ।”এ স্লোগানকে সামনে রেখে বর্তমান বাংলাদেশ পুলিশ এগিয়ে চলছে। বাংলাদেশ পুলিশ জনগণের বন্ধু হয়ে দেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষা করবে এমনটা কেবল সাধারন মানুষের ভাবনাতে ছিল বলে মনে করে সাধারন জনগন।বর্তমান করোনা সংকটে বাংলাদেশ পুলিশ সত্যি অারেকবার প্রমাণ করল সাধারণ মানুষের আস্থা ও বিশ্বাসের এক অনন্য নাম বাংলাদেশ পুলিশ।

চিকিৎসকদের পরে সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে সেবা দিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশ এবং সর্বোচ্চ সংখ্যক আক্রান্ত হয়েছে পুলিশ সদস্যরাই। কোথায় নেই বাংলাদেশ পুলিশ? বর্তমান করোনা সংকটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে বিষয়গুলোর কারণে বাংলাদেশ পুলিশকে নিয়ে সাধারন মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি বদলে গেছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্যসমূহ নিম্নরূপঃ ১/হোম কোয়ারেন্টাইন, লকডাউন এবং সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণে বাংলাদেশ পুলিশ কাজ করছে। ২/জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন সচেতনতামূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করছে বাংলাদেশ পুলিশ।

২/গোপনে অসহায় ও মধ্যবিত্তদের খাবার দিচ্ছে পুলিশ। ৩/বাংলাদেশ পুলিশের কষ্টার্জিত ২০ কোটি টাকা ত্রান তহবিলে দিল বাংলাদেশ পুলিশ। ৪/গানের মাধ্যমে জনগনকে বাসায় থাকতে উৎসাহিত করছে বাংলাদেশ পুলিশ। ৫/ করোনা যুদ্ধে ফ্রন্টলাইনে কাজ করছে যারা তাদের সর্বোচ্চ সেবা দিতে কাজ করছে বাংলাদেশ পুলিশ। ৬/করোনায় আক্রান্তদের হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশ। ৭/ করণায় আক্রান্ত মৃত মানুষের কবর খুঁড়ছে পুলিশ। ৮/করোনায় আক্রান্ত মৃত ব্যক্তির জানাজা পড়াচ্ছে পুলিশ। ৯/করোনায় মৃত লাশের দাফন করছে বাংলাদেশ পুলিশ।

১০/জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আমাদের ২৪ ঘন্টা নিরাপত্তা দেওয়ার চেষ্টা করছে পুলিশ সহ এমন অনেক ইতিবাচক কর্মকাণ্ড। বাংলাদেশ পুলিশের কর্মকান্ডে পরিবর্তন এসেছে এতে কোন সন্দেহ নেই। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জাতির এই সংকটকালে তারা দেশকে যেভাবে সেবা দিয়ে যাচ্ছে তা সত্যিই অনন্য দৃষ্টান্ত।আমাদের সবার উচিত বাংলাদেশ পুলিশের এমন ইতিবাচক কর্মকাণ্ডের প্রশংসা করা। পুলিশের এমন ইতিবাচক পরিবর্তন নিয়ে কথা হলে ফরিদপুরের ভাঙ্গা থানার এসআই আমিনুল ইসলাম বলেন,”বাংলাদেশ পুলিশ সব সময় জনগণের বন্ধু হয়ে দেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষার কাজে নিয়োজিত থাকে ।কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনার জন্য হয়তো অতীতের সুনাম গুলো সেভাবে দৃশ্যমান হয়নি। জনগনেরও উচিত আইন মেনে পুলিশেকে সহযোগিতা করা।”

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button