কাঁচা আমের ৫ রকমের শরবত গরমকালের জন্য।

আমের তৈরি ৫ টি স্পেশাল শরবতের রেসিপি নিয়ে আমরা হাজির। চলুন দেখে নেওয়া যাক কিভাবে বানাবেন আমের ৫ রকমের স্পেশাল শরবত।

আম খেতে আমরা সবাই ভালোবাসি। বিশেষ করে গরমকালে আমের শরবত। গরমকালে আমের শরবত প্রায় সব ঘরে ঘরে বানানো হয়ে থাকে কম বেশি। সাধারণত কাঁচা পাকা দুধরণের আমের শরবত বানান হয়। আজ আমরা আপনাদের জন্য আমের তৈরি ৫ টি স্পেশাল শরবতের রেসিপি নিয়ে হাজির। চলুন দেখে নেওয়া যাক কিভাবে বানাবেন আমের ৫ রকমের স্পেশাল শরবত।

১. আম পোড়া আমের শরবত

কাঁচা আম পুড়িয়ে এই শরবত বানানো হয়ে থাকে। আসুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে আম পোড়া আমের শরবত বানাতে হয়।

উপকরণ

কাঁচা আম ২ টো, পরিমান মত চিনি, বিটনুন, কাঁচা মরিচ, বরফকুচি। ( দু গ্লাস শরবতের জন্য)

বানানোর পদ্ধতি

প্রথমে ২ টো আম খোসা সহ পুড়িয়ে নিন। তারপর ঠাণ্ডা হলে আমের খোসা ছাড়িয়ে নিন। দেখবেন আমের ভিতরটা নরম হয়ে গিয়েছে। এবার একটি বাটিতে পরিমান মত চিনি, বিটনুন, মরিচ নিন। আমের সাথে সব ভালো করে মিশিয়ে কিছুক্ষণ রাখুন। ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করুন সব এক সাথে। বরফকুচি দিয়ে ব্লেন্ড করতে পারেন। বা পরিবেশনের সময় উপরে বরফকুচি ছড়িয়ে দিতে পারেন। রেডি আম পোড়া আমের শরবত।

২. আম পুদিনা শরবত

আম ও পুদিনা পাতা মূল উপকরণ এই শরবতের।

উপকরণ

কাঁচা আম ২ থেকে ৩ টে, অল্প পুদিনা পাতা, পরিমান মত চিনি, স্বাদ মত বিটনুন, কাঁচা মরিচ ও ১ লিটার জল।

বানানোর পদ্ধতি

কাঁচা আম খোসা ছাড়িয়ে টুকরো টুকরো করে কেটে নিয়ে একটি বাটিতে রাখুন। এবার তাতে পুদিনা পাতা, চিনি, বিটনুন, মরিচ মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি ভালো করে মেখে ১০ মিনিট রাখুন। এবার ব্লেন্ডারে অল্প জল দিয়ে পুরো মিশ্রণটি ব্লেন্ড করুন। এবার গ্লাসে জল নিয়ে মিশ্রণটি পরিমান মত দিয়ে ঘুটে নিন। ঠাণ্ডা খেতে চাইলে কিছুক্ষণ ফ্রিজে রেখে খেতে পারেন। বা বরফকুচি মিশিয়ে খেতে পারেন।

৩. সেদ্ধ আমের শরবত

আম সেদ্ধ করে শরবতটি সাধারণত বানানো হয়ে থাকে।

উপকরণ

কাঁচা আম ৪ টে, ১ কাপ জল, পরিমান মত চিনি, স্বাদ মত বিটনুন, ১চা চামচ সরষেবাটা বা গুঁড়ো, হাফ চা চামচ কাঁচা মরিচ বাটা, ও বরফকুচি।

বানানোর পদ্ধতি

আম ৪ টে অল্প জলে ভালো করে সেদ্ধ করে নিন। ঠাণ্ডা হলে আমের খোসা ছাড়িয়ে নিয়ে আটি ফেলে দিন। আমের সাথে উপকরনগুলি সব ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে ১৫ মিনিট ফ্রিজে রাখুন। এবার পুরো মিশ্রণটি ব্লেন্ডারে অল্প জল দিয়ে ব্লেন্ড করুন ভালো করে। গ্লাসে বরফকুচি দিয়ে পরিবেশন করুন।

৪. আম ঠাণ্ডাই শরবত

গরমকালে আম ঠাণ্ডাই দারুন আরাম দেয় খেলে। গরমকালের জন্য পারফেক্ট শরবত এই আম ঠাণ্ডাই।

উপকরণ

সেদ্ধ আমের টুকরো এক বাটি, ৪ চামচ লেবুর রস, পরিমান মত চিনি, স্বাদ মত বিটনুন, জিরাগুঁড়ো, বরফকুচি।

বানানোর পদ্ধতি

সেদ্ধ আমের টুকরোর সাথে অল্প লেবুর রস, চিনি, নুন, জিরেরগুঁড়ো মিশিয়ে ব্লেন্ডারে অল্প জল দিয়ে ব্লেন্ড করুন ভালো করে।এবার একটি বাটিতে লেবুর রস নিন। যে গ্লাসে শরবত খাবেন সেই গ্লাসটি উল্টো করে গ্লাসের মুখটা লেবুর রসে কিছুক্ষণ ডুবিয়ে রাখুন। এবার লেবুর রস থেকে গ্লাসটিকে সরিয়ে ঠিক একই ভাবে বিটনুন ও জিরের গুঁড়ো অল্প লাগিয়ে নিন। এর ফলে শরবত খাওয়ার সময় বেশি স্বাদ পাবেন। বরফকুচি দিয়ে ব্লেন্ড করতে পারেন। বা পরিবেশনের সময় উপরে বরফকুচি ছড়িয়ে দিতে পারেন। রেডি আমের ঠাণ্ডাই শরবত।

৫. কাঁচা আমের রসনা

কাঁচা আমের রসনা বাচ্চাদের বেশি ভালো লাগবে খেতে। বানিয়ে দেখতে পারেন কেমন লাগে খেতে। কিভাবে বানাবেন জেনে নিন।

উপকরণ

কাঁচা আম ৫ থেকে ৬ টা, চিনি, বিটনুন, জিরেরগুঁড়ো।

বানানোর পদ্ধতি

কাঁচা আম নুন মাখিয়ে ভালো করে রোদে শুকিয়ে আমের গুঁড়ো বানিয়ে নিন। রোদে আম শুকিয়ে সেটা ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করলেই আমের গুঁড়ো হয়ে যাবে। কাঁচের জারে রেখে দিন। যখনই কাঁচা আমের রসনা খেতে ইচ্ছে হবে তখনই বানিয়ে খেতে পারবেন। এক গ্লাস ঠাণ্ডা জলে আমের গুঁড়ো মিশিয়ে তার সাথে পরিমান মত চিনি, স্বাদ মত বিটনুন ও জিরে গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। রেডি আমের রসনা।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button