কান্দাহার বিমানবন্দরে রকেট হামলা, সব ফ্লাইট বাতিল

তালেবান যোদ্ধারা হেরাত শহরের দক্ষিণে রণাঙ্গন এলাকা অতিক্রম করে শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঢুকে পড়েছে এমন খবর পাওয়া যাচ্ছে। গত শুক্রবার আফগান কর্মকর্তারা বলেছিলেন আমেরিকান বিমান হামলার সহায়তায় তারা তালেবান বিদ্রোহীদের পিছু হঠতে বাধ্য করেছেন। এরপর গতকাল শনিবার হেরাতে আবার তুমুল লড়াই শুরু হয়েছে।আফগানিস্তানের সরকার জানিয়েছে, রকেট হামলার কারণে বাধ্য হয়েই বিমানবন্দরটির সব ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

এখানের রানওয়ের একটি অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। আফগান কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কান্দাহারকে কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ মনে করে তালেবান। এটিকে কন্ট্রোল সেন্টার হিসেবে ব্যবহার করে অন্য পাঁচটি প্রদেশের ওপর আধিপত্য বিস্তার করতে চাইছে তালেবান। 

তালেবানরা আফগানিস্তানের কান্দাহার বিমানবন্দরে রকেট হামলা চালিয়েছে। গতকাল শনিবার রাতে তারা সেখানে অন্তত তিনটি রকেট ছোঁড়ে। আজ রবিবার এ তথ্য জানানো হয়েছে। তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ জানিয়েছেন, আফগান সরকারি বাহিনীর বিমান হামলা ব্যাহত করার জন্যই কান্দাহার বিমানবন্দরে হামলা চালানো হয়েছে।

 এই বিমানবন্দর ব্যবহার করে তালেবানদের লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছিল আফগান বাহিনী। এদিকে আফগানিস্তানের দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ শহরে তীব্র লড়াই চলছে। দেশটির সরকারি বাহিনীর কাছ থেকে এসব শহরের দখল নেওয়ার জন্য তালেবান সেখানে হামলা চালাচ্ছে। পশ্চিমের হেরাত শহরে বিদ্রোহীরা তাদের আক্রমণ জোরদার করেছে এবং খবর পাওয়া যাচ্ছে তালেবান যোদ্ধারা শহরের ভেতর ঢুকে পড়েছে। লড়াই চলছে লস্কর গাহ এবং কান্দাহারেও।

সূত্র: রয়টার্স, বিবিসি।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button