কয়েেকশ” কর্মী- সমর্থকদেের নিয়ে মনোোনয়ন পত্র জমা দিলেন লুৎফর রহমান স্বপন

কয়েকশত কর্মী সমর্থক নিয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন আসন্ন ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতিকের একক প্রার্থী লুৎফর রহমান স্বপন। তিনি উক্ত পরিষদের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান।

এদিন বেলা ১১ টার দিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাচন কার্যালেয়ে হাজির হয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন-প্রস্তাবকারী ও সমর্থনকারী হামিদুর রহমান চৌধুরী(যাদু চৌধুরী) ও মোবারক হোসেন (হান্নান চৌধুরী)।

এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন-থানা আওয়ামী লীগ নেতা ওয়ালী মাহমুদ, আলহাজ্ব ফরিদ আহমেদ লিটন, মোবারক হোসেন, লুৎফর রহমান স্বপন, কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জসিম উদ্দিন ও চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভাগিনা মাহফুজুল আলম পারভেজ প্রমূখ।

এর আগে ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও থানা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি লুৎফর রহমান স্বপনের নাম ণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই।

তিনি ওই সময় গণমাধ্যমকে জানিয়ে ছিলেন ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পরিষদের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান স্বপনের নামই এসেছে। এই একজনের নামই কেন্দ্রে পাঠানো হবে।

উল্লেখ্য, ১৫ নভেম্বর চাঁদমারী এলাকায় ফতুল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের প্রস্তাবে ৮ জনের নাম উঠে আসে। পরদিন ১৬ নভেম্বর বিকেলে পঞ্চবটিতে ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে আয়োজিত বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় সিদ্ধান্ত হয়, ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সাংসদ শামীম ওসমানের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নের জন্য নৌকার প্রার্থীদের তালিকা পাঠাবে ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগ।

ওই সভায় সভাপতির বক্তব্যে ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম সাইফউল্লাহ বাদল বলেছেন, আপনাদের আমার সবার প্রিয় নেতা শামীম ওসমান। শামীম ওসমান যে সিদ্ধান্ত নিবে সে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমরা তার কাছে সাদা প্যাড দিয়ে দিবো, এমপি সাহেব যেটা ভালো মনে করবে ওইটাই হবে। যদি উনি একজন দেয় একজনের পক্ষে আপনাদের সবার থাকতে হবে। আর যদি তিনজন দেয় তাহলে আমরা তিন জনের জন্যেই রাজি। এই বিষয়ে বর্ধিত সভায় সবার মতামত চাইলে মনোনয়ন প্রত্যাশীসহ উপস্থিত সবাই সম্মতি পোষণ করে।

এর আগে গত ১০ নভেম্বর তফসিল ঘোষণার পর থেকে সম্ভাব্য ৮ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর পক্ষে তাদের কর্মী সমর্থকরা নানাভাবে প্রচারনা চালাতে থাকে। অপরদিকে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা দলীয় মনোনয়ন বাগাতে যে যার মত চেষ্টা তদবির করতে থাকেন। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্যরা হলেন-জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ফতুল্লা থানা যুবলীগের সভাপতি মীর সোহেল আলী, একই থানা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফায়জুল ইসলাম, থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব ফরিদ আহমেদ লিটন ও থানা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু মো. শরিফুল হক।

তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৫ নভেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিল, ২৯ নম্বর মনোনয়পত্র যাচাই-বাছাই, ৩-৫ ডিসেম্বর আপিল নিষ্পত্তি, প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৬ ডিসেম্বর, প্রতীক বরাদ ৭ ডিসেম্বর এবং ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ২৩ ডিসেম্বর।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button