চিল এর শ্রেনিবিন্যাস

  • চিল বাংলাদেশের আবাসিক শিকারি পাখি।

শ্রেণিবিন্যাস :

Phylum – Chordata

Subphylum – Vertebrata

Class – Aves

Order – Ciconiformes

Family -Accipitridae

Genus – MilvusSpecies – M. migrans.

স্বভাব ও বসতি (Habit and habitat) :

দিনের বেলায় চিল কেঁচো, পাখাযুক্ত পিঁপড়া, টিকটিকি, ইঁদুর, ছােট পাখি ইত্যাদি শিকার করে খায়। সাধারণত চিল মানব আবাসস্থলের কাছাকাছি থাকে। এদেরকে বাংলাদেশের সর্বত্র আবাসিক পাখি হিসেবে দেখা যায়। দেশের বাইরে হিমালয় পর্বতসহ নেপাল, শ্রীলঙ্কা, মায়ানমার প্রভৃতি দেশে চিল দেখা যায় ।

গঠন (Structure) :

চিল বেশ বড়, দৈর্ঘ্যে প্রায় ২৪ ইঞ্চি। এদের দেহের পালক লালচে বাদামি বর্ণের। তার সাথে ডােরা দাগ বিদ্যমান। আকাশে উড়ার সময় চিলের লেজ দ্বিধা বিভক্ত দেখা যায়। এদের ঠোট ধারালাে, তীক্ষ্ণ ও আঁকড়ার মতাে দেখায় এবং পায়ের আঙুল লম্বাটে শক্তিশালী ও সুচালাে নখরযুক্ত। এদের স্ত্রী ও পুরুষ বাহ্যিক দিক থেকে সাদৃশ্যযুক্ত।

প্রজনন (Reproduction) :

চিল প্ৰজনন ঋতুতে গাছের শাখাপ্রশাখা শুকনাে সরু কাণ্ড দিয়ে বড় গাছের ডালে বা পরিত্যক্ত দালানের ছাদে বা কার্নিশে বাসা তৈরি করে। ঐ বাসায় ডিসেম্বর থেকে এপ্রিলের মধ্যে ২টি বা ৪টি ডিম পাড়ে। গােলাপি সাদা বর্ণের ডিমের উপর লালচে বাদামি বর্ণের ছিট দেখা যায়। চিলের স্ত্রী ও পুরুষ উভয় পাখি বাসা বানানাে ও বাচ্চা প্রতিপালনে অংশগ্রহণ করে।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button