তাসকিনের আবদারে মাঠে ক্যাপ্টেন ফ্যান্টাস্টিক

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের মাঝ উইকেটে তাসকিন আহমেদ তখন বোলিং করছিলেন। ব্যাটিংয়ে ছিলেন নুরুল হাসান। পাশে দাঁড়িয়ে সৌম্য সরকার তা দেখছিলেন। এমন সময় ড্রেসিংরুম থেকে আবির্ভূত হলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। সঙ্গে তাঁরই আরেক পুরোনো সতীর্থ শাহরিয়ার নাফীস। সবার মনে তখন প্রশ্ন, মাশরাফি হঠাৎ কেন মিরপুরে?

একটু পরই জানা গেল মাশরাফির আগমনের হেতু। তাসকিন নাকি বেশ কিছুদিন ধরেই মাশরাফির সঙ্গে বোলিং কৌশল নিয়ে কাজ করতে চাচ্ছিলেন। সে জন্যই মাশরাফির মাঠে আসা। এক ঘণ্টারও বেশি সময় মাশরাফির সঙ্গে বোলিংয়ের খুঁটিনাটি নিয়ে কাজ করেন তাসকিন। নিজে দৌড়ে এসে হাত ঘুরিয়েও কী যেন দেখিয়ে দেন তিনি!

দুই পেসারের ক্লাসে মনোযোগী দর্শক নুরুল 

অবিসংবাদিতভাবে বাংলাদেশের সেরা পেসার ছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। তাকে দেখে অনুপ্রাণিত হয়েই বহু তরুণ এখন পেসার হতে চায়। তাসকিন, মুস্তাফিজরা সবাইকে যেন পথ দেখিয়েছেন মাশরাফি। অভিষেকের পর থেকেই অধিনায়ক হিসেবে মাশরাফি বিন মুর্তজাকে পেয়েছিলেন তাসকিন আহমেদ। দুজনের মিল দেখে একসঙ্গে ‘ম্যাশকিন’ বলেও ডাকা হতো। এবার বিশ্বকাপে যাওয়ার আগে নিজের আইডলের থেকে টিপস নিলেন তাসকিন। 

kalerkantho

আজ বৃহস্পতিবার তাসকিনের অনুরোধে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে যান দেশের সফলতম অধিনায়ক মাশরাফি। এরপর তিনি তাসিকন, সৌম্যদের নিয়ে বেশ কিছুক্ষণ কাজ করেন। 

তাসকিনও মাশরাফির সামনে বোলিং করলেন। স্টাম্পের সামনে ক্যাপ রেখে তাসকিনকে স্পট বোলিংয়ের অনুশীলন করতে বলেন মাশরাফি। সাবেক অধিনায়কের দেওয়া চ্যালেঞ্জ উতরেও যান তিনি। উইকেটের সামনে রাখা ক্যাপের পাশ ঘেঁষে বল করতেই তাসকিনকে হাততালি দিয়ে প্রশংসায় ভাসান বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক।

হাত ঘুরিয়েও দেখালেন কীভাবে বল করতে হবে

মাশরাফির সঙ্গে বোলিং কৌশল নিয়ে কাজ করার ব্যাপারটি নিজেই ব্যাখ্যা করলেন তাসকিন, ‘ভাইয়াকে বলেছিলাম এক দিন সময় দেওয়ার জন্য। স্লোয়ারটা নিয়ে কাজ করতে চাচ্ছিলাম তাঁর সঙ্গে। তিনি কিছু কাটারের গ্রিপ বলে দিলেন। অবশ্য এটাও বলে দিয়েছেন, একসঙ্গে সবগুলো নিয়ে কাজ করা যাবে না। যেহেতু সামনেই বিশ্বকাপ। আপাতত কাটার নিয়ে কাজ করতে বলেছেন তিনি। একটা আয়ত্তে এলে অন্যটা চেষ্টা করতে বলেছেন তিনি।’

kalerkantho

ক্লাস শেষে সাংবাদিকদের তাসকিন আহমেদ বলেন, ‘অনেকদিন ধরেই ভাইয়াকে বলছিলাম একটু সময় দেওয়ার জন্য। আমার পেস, সুইং এগুলোই আল্লাহর রহমতে উন্নতি হচ্ছে, তবে স্লোয়ারে একটু পিছিয়ে আছি। স্লোয়ারে আরও উন্নতি করতে চাই, এইজন্যই ভাইয়াকে সবসময় বলতাম। অন্যদের তুলনায় স্লোয়ারে একটু পিছিয়ে আমি, যেন উন্নতি হয় এইজন্যই ভাইয়া সময় দিলেন। আজ উনি কিছু গ্রিপ দেখালেন। বললেন যে একেক জনের অ্যাকশন একেক রকম হয়, তবুও একটু চেষ্টা করে দেখতে। আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে কিছু কাটারের গ্রিপ।’ 

বাংলাদেশ দলের আরেক পেসার মোস্তাফিজুর রহমান কাটারের জন্য বিখ্যাত। মাশরাফিও গত পাঁচ-ছয় বছর কাটার দিয়ে প্রচুর সাফল্য পেয়েছেন। কিন্তু তাসকিনকে নিয়মিত কাটার করতে দেখা যায় না। গতিই তাঁর মূল শক্তি, গতির বৈচিত্র্য নয়। কিন্তু উপমহাদেশের কন্ডিশনে ধারাবাহিক সাফল্য পেতে হলে গতির বৈচিত্র্যও দরকার। তাসকিন বলছিলেন, ‘আমার শক্তি পেস-বাউন্স। এটার সঙ্গে কাটার যোগ হলে আরেকটা বিকল্প হতে পারে। যদি শিখতে পারি, আমার মনে হয়, ভালো হবে। তবে মোস্তাফিজের মতো কাটার আমি পারব না।’

kalerkantho

তাসকিন আরও বলেন, ‘মূলত দুই-তিনটা গ্রিপ দেখিয়েছেন। আমারটা থেকে একটু ভিন্ন। বললেন যে এতকিছু তো হঠাৎ করে শেখা যাবে না। আপাতত কাটার নিয়ে কাজ করতে বললেন যেহেতু সামনে অনেক খেলা। ভালো লাগলে এটা চালিয়ে যেতে বললেন। এটা যখন আয়ত্ত্বে আসবে, তারপরে আরেকটা করতে। যেহেতু সামনে খেলা, একসাথে এতকিছু শিখতে গেলে সমস্যা হতে পারে। তাই একটাতেই ফোকাস করতে বললেন। আশা করি, এগুলো নিয়ে কাজ করলে ভবিষ্যতে ভালো হবে। এসব নিয়েই ভাইয়ার সাথে একটা সেশন কাটল।’

তাসকিনও মাশরাফির সামনে বোলিং করেছেন
তাসকিনও মাশরাফির সামনে বোলিং করেছেন

অনুশীলনের ফাঁকে আরেকটি চমক দেখা যায় টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর আসায়। মিরপুর স্টেডিয়ামের জিমনেসিয়াম থেকে বেরিয়ে মাঠে আসতেই মাঝমাঠে মাশরাফিকে দেখতে পান মাহমুদউল্লাহ। সাবেক অধিনায়ককে দেখতেই দৌড়ে এসে মাশরাফিকে জড়িয়ে ধরেন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। কিছুক্ষণের জন্য মিরপুরের মাঝমাঠ হয়ে ওঠে মিলনমেলায়।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button