নারায়ণগঞ্জের ১নং রেলগেইটে যাত্রীবাহী আনন্দ বাসের সাথে চলন্ত ট্রেনের সংঘর্ষে তিন জনের মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জের ১নং রেলগেইট এলাকায় যানজটে আটকা পড়ে রেল লাইনের উপর দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীবাহী আনন্দ বাসের সাথে চলন্ত ট্রেনের সংঘর্ষে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৬ টার দিকে শহরের ১নং রেলগেইট ফলপট্রি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী ট্রেন নারায়ণগঞ্জ রেলষ্টেশনের অদূরে ১নং রেল গেইট (ফলপট্রি) সিগনাল অতিক্রমকালে যানজটের কারনে রেললাইনে উপর দাড়ানো আনন্দ বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১১৪৩৭৪) কে দুমড়ে মুচড়ে প্রায় ৫০ গজ দূরে নিয়ে যায়। বাসে ১২/১৩ জন যাত্রী ছিলো। এরমধ্যে ঘটনাস্থলে ২ জনের মৃত্যু হয়। এদের মধ্যে ৯ জনকে আশংকাজনক অবস্থায় নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতাল থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ঢাকা পঙ্গু হাসপাতাল পাঠানো হয়েছে।

তাদের মধ্যে রুহুল মিয়া (৪২), কাদের মোল্লা (৩৫), মিজান মিয়া (৬৫), মনা, মনির হোসেন (২৬), আমেনা আক্তার (৪০) ও শাকিল (১২) এর নাম জানা গেছে। এছাড়াও সাত বছরের অজ্ঞাত শিশুকে পা কাটা অবস্থায় ঢামেকে কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঢামেক হাসপাতালে পাঠানো প্রত্যেকের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে গুরুতর জখম রয়েছে। এছাড়াও নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের জরুরী বিভাগে আমেনা আক্তার (৪০) নামে এক নারী চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে, মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাৎক্ষনিক নিহতদের নাম পরিচয় পাওয়া যায়নি। আহতদের অনেকে শহরের বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা নিয়েছেন বলে একাধিক সূত্র জানায়।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের নারায়ণগঞ্জের উপ-সহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফীন বলেন, আমরা উদ্ধার কাজ করছি। হতাহতদের পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী শাহজাহান জানায়, সন্ধ্যা ৬ টার দিকে ঢাকা থেকে আসা ট্রেন নারায়ণগঞ্জ রেলষ্টেশনের কাছাকাছি আসামাত্র ১নং রেলগেইট সিগনালের সামনে রেললাইনের উপর দাঁড়ানো আনন্দ পরিবহনের বাসটিকে চাপা দেয়। এসময় যানজটের কারনে লাইনম্যান সিগনাল ব্যারিয়ার না ফেলার কারণে বাসটি রেললাইনের উপর উঠে যায়। ট্রেন আসছে দেখে লাল ফ্লাগও উড়ায়নি সিগনাল ম্যান। তার দোষেই এতোবড় মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে গেলো।

অপর প্রত্যক্ষদর্শী হেদায়েত হোসেন বলেন, বাসটিতে ১২/১৩ জন যাত্রী ছিলো। রেললাইনের উপর দাড়ানো বাসটিকে মাঝামাঝি ধাক্কা দিয়ে দুমড়ে মুচড়ে নিয়ে যায় ট্রেনটি। এরপর ট্রেনটি থেমে গেলেও বাসের ভেতর থেকে হতাহতদের উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন। এরমধ্যে একজন শিশু ও একজন বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করে। আরও একজনের খন্ড পা উদ্ধার করে।

নারায়ণগঞ্জ রেল ষ্টেশনের সহকারি মাষ্টার সি এম আক্তার হায়দার জানান, ৫টা ২০ মিনিটে ট্রেনটি (ট্রেন নং-৯৩০) ঢাকা থেকে ছেড়ে এসে ৬টা ৫ মিনিটে নারায়ণগঞ্জে দূর্ঘটনার স্বীকার হয়। কিভাবে দূর্ঘটনা ঘটল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বিস্তারিত পরে জানানো যাবে। উদ্ধার কাজ চলছে।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহ জামান বলেন, ঢাকা থেকে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় রেল স্টেশনে ঢুকছিল ট্রেনটি। ওই সময়ে ১ নং রেলগেট এলাকায় কালীরবাজার থেকে আসা আনন্দ পরিবহনের একটি বাস সামনে পড়ে যায়। তখন ট্রেনটি সজোরে ধাক্কা দেয়। পরে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে। তবে তারা বাসের যাত্রী না ট্রেনের, সেটা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button