না.গঞ্জের সোনারগাঁওয়ে জামপুরে যুবলীগের নেতার তান্ডব

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে এক ব্যবসায়ীর দুটি দোকান রাতের আধাঁরে মালপত্র সরিয়ে ভাংচুর করে দখলে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে। রোববার রাতে জামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সামসুল আলমের বিরুদ্ধে জামপুরের তালতলা এলাকায় এ দোকান ভাংচুর করেছে বলে এ অভিযোগ উঠে।

এ ঘটনায় ভূক্তভোগী ব্যবসায়ীর ছেলে মো. শফিক মিয়া বাদী হয়ে সোমবার দুপুরে সোনারগাঁও থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সোনারগাঁও থানায় দায়ের করা অভিযোগ থেকে জানা যায়, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের তালতলা বাজারে সোনা মিয়া নামের এক ব্যবসায়ী ব্রাক্ষণবাওগা মৌজায় বাংলাদেশ রেলওয়ে থেকে ২ শতাংশ জমি লিজ নিয়ে দোকান ঘর নির্মাণ করে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। দীর্ঘ ২৬ বছর ধরে এ ব্যবসায়ী এ জমি ভোগ দখলে রয়েছেন। জামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সামসুল আলম তার প্রভাবে ওই ব্যবসায়ীকে হুমকি দিয়ে এ জমি দখলের পায়তারা করে। রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে সামসুল আলমের নেতৃত্বে মাহাম্মদ, বিল্লাল হোসেন, ইউসুফসহ ১০-১২ জনের একটি দল দোকানে গিয়ে মালপত্র সরিয়ে ভাংচুর করে দখলে নিয়ে নেন।

ব্যবসায়ী সোনা মিয়া জানান, দীর্ঘদিন ধরে রেলওয়ের কাছ থেকে জমি লিজ নিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছি। এ জমির সড়কের পাশে হওয়ার কারনে চোখ পড়ে যুবলীগ নেতা সামসুলের। এ জমি দখলে নেওয়ার জন্য সে আমাকে ও আমার পরিবারের লোকজনকে হুমকি দিয়ে আসছে। সে রোববার রাতে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুৃর করে দখলে নিয়ে যায়। এতে আমার প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

অভিযুক্ত জামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সামসুল আলম জানান, আমার পাশ্ববর্তী জায়গা লিজ রয়েছে। এ দোকান লিজকৃত জায়গায় থাকায় ভেঙ্গে দিয়েছি। অনুমতি ছাড়া রাতের আধাঁরে কেন ভাঙ্গা হলো এ প্রশ্নের জবাব তিনি এড়িয়ে যান।

সোনারগাঁও থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান জানান, দোকান ভাংচুরের ঘটনায় অভিযোগ গ্রহন করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button