চট্টগ্রামে করোনায় মৃত ব্যক্তির শেষ বিদায়ের আপনজন “কোয়ান্টাম”

প্রিয়োজনরা যখন মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন তখন একদল আলোকিত মানুষ কাঁধে তুলে নিয়েছেন করোনা শহিদ দের পরম মমতায় শেষ বিদায় জানাতে।


করোনায় পাল্টে গেছে চেনা মানুষ গুলো। মৃত মানুষটি পাচ্ছেন না ধর্মীয় ও মানবিক শেষ বিদায়। এ নির্মম পরিস্থিতিতে মৃত ব্যক্তিকে সম্মানজনক শেষ বিদায় জানাতে এগিয়ে এসেছে ‘কোয়ান্টাম’। গত ৭ এপ্রিল থেকে কোয়ান্টাম স্বেচ্ছাসেবকদের লাশ দাফন কার্যক্রম শুরু । ফাউন্ডেশনের
চট্টগ্রামে এ কার্যক্রম শুরু হয় ২৩ মে থেকে। এ পর্যন্ত ৮২টি লাশের দাফন ও সৎকার করা হয়। এর মধ্যে মুসলিম ৫৫, সনাতন ২১, বৌদ্ধ ধর্মের ৬ জন।

সৎকার কার্যক্রমের আহ্বায়ক দেবাশীষ পাল দেবু বলেন, ‘আমরা যুদ্ধ করছি অদৃশ্য শত্রুর সাথে। মুক্তিযুদ্ধের সময় শত্রু ছিল দৃশ্যমান। তবুও মানুষ মানুষের পাশে ছিল। আর লাশ সৎকারে যাচ্ছি বলে পরিচিত অনেকেই ভয়ে আমাদের কাছে আসে না।’
এভাবেই কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের নিবেদিত প্রাণ কর্মীরা সারা দেশে নিরলসভাবে করোনাক্রান্ত ও করোনা উপসর্গে নিহত মানুষটিকে শেষ বিদায় জানাচ্ছেন তার প্রাপ্য সম্মানে। এটি আমাদের দায়িত্ব। প্রতিটি মানুষের অধিকার রয়েছে শেষ যাত্রায় সম্মান পাওয়ার। দাফন ও সৎকারের পুরো খরচ কোয়ান্টামের সদস্য দের অর্থায়নেই হচ্ছে।’

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button