ফরিদপুরের কানাইপুরে হাড়কাঁপানো শীতে ছায়ানীড় পরিবার এর কম্বল বিতরণ

সুন্দর সমাজ বিনির্মাণের লক্ষ্যে শান্তিময় দেশ ও জাতি গঠনের প্রত্যয়ে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ছায়ানীড় পরিবারের উদ্যোগে শীতার্ত শারীরিক প্রতিবন্ধী ও ছিন্নমুল মানুষদের হাতে শীত নিবারণে মানসম্মত কম্বল তুলে দিলেন ফরিদপুর সদর উপজেলার আওতাধীন ৯নং কানাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফকির মোঃ বেলায়েত হোসেন। ০৭ জানুয়ারি ২০২২ রোজ শুক্রবার বিকেলে শীতার্তদের উপস্থিতিতে শীতল কষ্ট থেকে এই অসহায় মানুষগুলোকে একটু উষ্ণতার সুখ দিতে মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে সতর্ক থাকতে অতিথিগণ স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ক দিকনির্দেশনা ও গঠনমূলক বক্তব্য প্রদান করেন এবং শীতার্ত ছিন্নমূল ও শারীরিক প্রতিবন্ধী মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র (কম্বল) বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া সচেতনতা বিষয়ক লিফলেট সহ সকলের মুখে মাস্ক পরিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাংলার রূপ বৈচিত্রের অনেকখানি জায়গা জুড়ে শীতের অবস্থান। শীত কারো জন্য আশীর্বাদ আর কারো জন্য কষ্টের। রাতে কম্বল আর নকশীকাথাঁ ব্যবহার করে অনেকে পরম সুখে ঘুমিয়ে থাকে। একই রাতে দরিদ্র ও ছিন্নমূল মানুষের ঘরের বেড়া কিংবা দরজা-জানালার ফাঁক দিয়ে শীত প্রবেশ করে শোবার ঘরে। বাংলাদেশের শীতলতম মাস জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে আজ ০৭ জানুয়ারি ২০২২ উষ্ণতা দিতে শীতার্ত মানুষের মাঝে ছায়ানীড় পরিবার এর আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কম্বল বিতরণের শুভ উদ্বোধন করেন, ছায়ানীড় পরিবারের সম্মানিত উপদেষ্টা জনাব ফকির মোঃ বেলায়েত হোসেন, চেয়ারম্যান ৯নং কানাইপুর ইউনিয়ন পরিষদ। শীতে কানাইপুরের শীতার্ত শারীরিক প্রতিবন্ধী ও ছিন্নমুল মানুষের দুর্ভোগ ও কষ্টের কথা চিন্তা করে ছায়ানীড় পরিবারের উদ্যোগে মাস ব্যাপী কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামের পাড়া-মহল্লায় ঘুরে ঘুরে বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধী ছিন্নমুল মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হবে। একই সাথে রাস্তার পথচারী, প্রতিবন্ধী, ভ্যান ও রিকশাচালকদের মাঝে কম্বল বিতরণ করবেন বলে জানিয়েছেন সংগঠনের সদস্য বৃন্দ। এছাড়া রাতের আঁধারে শীতার্ত ও ছিন্নমুল মানুষদের শীত নিবারণে বাইকে ঘুরে ঘুরে শীতবস্ত্র (কম্বল) নিয়ে ছিন্নমূল অসহায় শীতার্তদের বাড়িতে পৌঁছে দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে এই সংগঠনের সদস্যরা। সংগঠনের উপদেষ্টা ও ইউপি চেয়ারম্যানের হাত থেকে একটি করে কম্বল পেয়ে খুশি হওয়া মানুষগুলো আবেগ জড়িত কণ্ঠে বলেন, আমাদের এখানে বাড়িতে এসে আগে কোনোদিনই কেউ এভাবে শীতবস্ত্র দেয়নি। ছায়ানীড় পরিবারের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও চেয়ারম্যান এর সহধর্মিণী মোছাঃ জেসমিন আক্তার পাখি জানান, ছায়ানীড় পরিবারের উদ্যোগে কানাইপুর ইউনিয়নের ছিন্নমূল শীতার্ত মানুষকে কিছু শীত বস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। এ বিতরণ সংগঠনের এর পক্ষ থেকে আগামীতেও অব্যাহত থাকবে। চেয়ারম্যান ফকির মোঃ বেলায়েত হোসেন বলেন, বিত্তবান মানুষ গরম কাপড় কিনে শীত নিবারণ করলেও গরিব-ছিন্নমূল মানুষরা টাকার অভাবে শীতের গরম কাপড় কিনতে পারছেন না। তাই অসহায় মানুষের জীবনে নেমে এসেছে চরম দুর্ভোগ। প্রচণ্ড ঠাণ্ডার কারণে দিনমজুর শ্রেণির মানুষ ঠিকমত কাজেও যেতে পারছে না। তাদের কষ্ট কিছুটা লাঘব করার জন্য এভাবেই রাতে বের হওয়া। ছায়ানীড় পরিবারের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মোঃ ইনামুল হাসান মাসুম জানান, এই শীতের মধ্যে সবচেয়ে বেশি কষ্টে থাকে অসহায় শারীরিক প্রতিবন্ধী ও ছিন্নমূল দরিদ্র মানুষগুলো। এ শ্রেণীর মানুষগুলো এমনিতেই অসহায়ভাবে জীবন-যাপন করে থাকে। তাই ছায়ানীড় পরিবারের বিশেষ উপহার শীতার্তদের জন্য কম্বল সবার আগে এদের মাঝে বিতরণ করেছি। এ কম্বল বিতরণ চলমান থাকবে বলেও তিনি উল্লেখ্য করে সমাজের বৃত্তবানদেরকে এসকল অসহায় শীতার্তদের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান। কম্বল বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন, ছায়ানীড় পরিবারের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মোছাঃ জেসমিন আক্তার পাখি, মোঃ ইনামুল হাসান মাসুম, ২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, ছায়ানীড় পরিবারের সদস্য মোঃ সানজান আহমেদ হাসিব সহ ছায়ানীড় পরিবারের শুভাকাঙ্ক্ষীগণ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button