বরগুনা কাচা বাজারের চওরা দাম।

বরগুনা জেলার কাঁচা বাজার গুলোতে লাগামহীভাবে বেড়ে চলছে সবজির দাম। এক সপ্তাহের ব্যবধানে দিগুণ হয়েছে প্রায় সবধরনের সবজির দাম। কাঁচামরিচ, টমেটোর দাম আকাশছোঁয়া। অস্বাভাবিক এ মূল্যবৃদ্ধির কারণে বিপাকে পড়েছেন ক্রেতারা।

আজ রোববার (১০ অক্টোবর) সকালে শহরের বিভিন্ন বাজার পরিদর্শন করে দেখা যায়, প্রায় সব ধরনের কাঁচা শাক-সবজির দাম বাড়তি। শীতকালীন সবজি বাজারে আসলেও দাম কমছে না কোনো সবজির। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে নিম্ন ও মধ্যবিত্তদের ওপর চরম প্রভাব ফেলেছে। সবজি কেনাকাটায় হিমসিম খাচ্ছেন তারা।

এক ক্রেতা বরগুনা নিউজ কে বলেন, গত সপ্তাহেও কাঁচামরিচ ১৫০ টাকায় বিক্রি হলেও আজ ২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দাম বৃদ্ধির কারণে না কিনেই চলে আসলাম। শুধু কাঁচামরিচই না সব সবজির দাম বেশি।

সবজি কিনতে আসা আরেক মহিলা ক্রেতা বলেন, এক সপ্তাহের ব্যবধানে প্রায় সব সবজির কেজিতে ২০-৩০ টাকা বেড়েছে।

বরগুনা সদর সবজির বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতি কেজি ঝিঙা, চিচিঙ্গা, ধুন্দল বিক্রি হচ্ছে ৬০-৭০ টাকা, কচুর লতি ৬০-৭০ টাকা, টমেটো ১২০-১৩০ টাকা, কাঁকরোল আকার ভেদে ৪০-৫৫ টাকা, বরবটি ৭০-৮০ টাকা, কচুর মুখি ৭০-৮০ টাকা, ঢেঁড়স প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকায়, পটল ৪৫ টাকা, পেঁপে ৫০ টাকা, দেশি শসা ৭০ টাকা, বাধা কপি ৬০ টাকা, শিম ১০০-১২০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

বরগুনা পৌর শহরের কয়েকজন পাইকারি সবজি বিক্রেতা বরগুনা নিউজকে বলেন, এক শ্রেণির অসাধু সবজি ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে মোকামে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে সবজির দাম বৃদ্ধি করছে। সবজি সংকটের কারণে মোকামে সবজির দাম বাড়তি রাখছে। ফলে এর প্রভাব পড়ছে খুচরা বাজারে।

এ বিষয় বরগুনা সদর উপজেলা কৃষি সম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হাসান বরগুনা নিউজকে বলেন, জেলার শাক-সবজির দাম বৃদ্ধি একটা রীতিতে পরিণত হয়েছে।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button