বৃক্ক

বৃক্ক মানুষের প্রধান রেচন অঙ্গ, এর
মাধ্যমে ৮০ ভাগ রেচন পদার্থ দেহ
থেকে নিষ্কাশিত হয়। মানুষের
উদরগহবরের দুপাশে বক্ষপিঞ্জরের
নিচে ও পৃষ্ঠপ্রাচীর সংলগ্ন হয়ে দুটি
বৃক্ক যুক্ত থাকে। সাধারণত বাম বৃক্কটি
ডান বৃক্কের চেয়ে সামান্য উপরে
থাকে। সমগ্র বৃক্ক ক্যাপসুল নামক তন্তুময়
যোজক টিস্যুর সুদৃঢ় আবরণে বেষ্টিত
থাকে।
বৃক্ক নেফ্রন নামক গাঠনিক ও কার্যিক
একককে গঠিত। প্রতিটি বৃক্কে ১০-১২
লক্ষ নেফ্রন থাকে। প্রতিটি নেফ্রন ৩
সে.মি. লম্বা। বৃক্কের মাধ্যমে প্রতি
মিনিটে রক্ত থেকে ১২৫ ঘন সে.মি.
তরল পদার্থ পরিশ্রুত হয় যার ৯৯% ই রক্তে
ফিরে যায়। প্রতি মিনিটে সাধারণত
১ ঘন সে.মি. মূত্র সৃষ্টি হয়।
বৃক্কে রেনাল ধমনি রক্ত সরবরাহ করে
এবং রেনাল শিরার মাধ্যমে CO2 যুক্ত
রক্ত ফিরে আসে। একটি বৃক্ক ক্ষতিগ্রস্থ
হলে অন্যটি যদি সুস্থ থাকে তাহলে
সুস্থ বৃক্কই দুটি বৃক্কের কাজ সম্পন্ন করে।
মূত্র নিষ্কাশনেরর গতিপথ-
অ্যাফারেন্ট ধমনি → গ্লোমেরুলাস →
বোম্যান্স ক্যাপসুলের গহবর → বৃৃক্কীয়
নালিকা → সংগ্রাহী নালি →
বৃক্কের পেলভিস → ইউরেটার →
মূত্রথলি → মূত্রনালি → রেচনরন্ধ্র →
নির্গমন।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button