মাঠে নামছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত

করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে সরকারের ১১ দফা নির্দেশনা বাস্তবায়নে প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। ট্রেন আগামী শনিবার থেকে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। বাসে অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের বিষয়ে আজ বুধবার বৈঠক হচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে কাল থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতও পরিচালনা করা হবে। সরকারি অফিসে গতবারের মতো জনবল অর্ধেকে নামিয়ে আনার চিন্তা-ভাবনা চলছে।

করোনার সংক্রমণ রোধে গত সোমবার ১১ দফা নির্দেশনা সংবলিত প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার। এগুলো ১৩ জানুয়ারি থেকে কার্যকর হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়।

kalerkantho

নেত্রকোনার জেলা প্রশাসক কাজী মো. আবদুর রহমান গতকাল মঙ্গলবার রাতে বিডি নিউজ ওয়ার্ল্ডকে বলেন, প্রজ্ঞাপন জারির পর স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তাঁরা।

করোনা শনাক্তের হার ৯ শতাংশ করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণ হার যখন বিশ্বব্যাপী দ্রুত বাড়ছে, তখন দেশেও তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

প্রতিদিনই নতুন রোগী ও শনাক্তের হার বাড়ছে। গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, গত সোমবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ২৭ হাজার ৩৯৯টি নমুনা পরীক্ষা করে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে দুই হাজার ৪৫৮ জন। শনাক্তের হার ৮.৯৭ শতাংশ। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ছিল ৮.৫৩ শতাংশ। এক সপ্তাহ ধরে প্রতিদিনই করোনা শনাক্তের হার বাড়ছে।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মারা

গেছেন দুজন। তাঁদের বয়স ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে। তাঁরা চট্টগ্রাম ও খুলনা বিভাগের বাসিন্দা। সরকারি হিসাবে এ নিয়ে দেশে করোনায় মারা গেছে মোট ২৮ হাজার ১০৭ জন।

ঢাকায় সবচেয়ে বেশি শনাক্ত

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুসারে, নতুন রোগী বেশি বাড়ছে ঢাকায়। গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় যেসব রোগী শনাক্ত হয়েছে, তাদের ৭৮ শতাংশের বেশি ঢাকা শহর ও ঢাকা জেলার বাসিন্দা। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত দুই হাজার ৪৫৮ জনের মধ্যে ঢাকা মহানগরসহ ঢাকা জেলার রোগী এক হাজার ৯২০ জন। আর ঢাকা বিভাগে মোট শনাক্ত এক হাজার ৯৭৯ জন। এই বিভাগে ঢাকার পরে বেশি শনাক্ত গাজীপুরে ১৬ এবং নারায়ণগঞ্জে ১১ জন।

ঢাকার বাইরে সবচেয়ে বেশি শনাক্ত চট্টগ্রামে। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলা মিলিয়ে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২০৭। আর বিভাগে মোট শনাক্ত ২৯৭ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বিডি নিউজ ওয়ার্ল্ডকে বলছে, শনাক্তের হার বাড়লেও হাসপাতালগুলোতে এখনো তুলনামূলক রোগী ভর্তি কম। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, ঢাকার সরকারি হাসপাতালগুলোতে করোনা রোগীদের জন্য নির্ধারিত বেশির ভাগ শয্যা, আইসিইউ ও এইচডিইউ শয্যা খালি রয়েছে।

সরকারি অফিসে জনবল অর্ধেক করার চিন্তা

করোনা নিয়ন্ত্রণে সরকারি অফিসে জনবলের উপস্থিতি অর্ধেকে নামিয়ে আনার চিন্তা-ভাবনা চলছে। এ ক্ষেত্রে গত বছর যেভাবে চালানো হয়েছিল, সেটির কথা ভাবা হচ্ছে।

তবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আলী আজমের কাছে জানতে চাইলে তিনি বিডি নিউজ ওয়ার্ল্ডকে বলেন, এখনো করোনা সংক্রমণের অবস্থা দেখা হচ্ছে। এর আগে অর্ধেক জনবল নিয়ে কাজ চালানো হয়েছে। তিন দিন করে অফিস করা হয়েছিল। এবারও করোনা বেড়ে গেলে সেই ধরনের চিন্তা-ভাবনা আছে।

তবে আগামী ১৮ থেকে ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত অনুষ্ঠেয় ডিসি সম্মেলন এখনো স্থগিত করা হয়নি। এরই মধ্যে সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। ডিসি সম্মেলন হবে কি না জানতে চাইলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব বলেন, এখন পর্যন্ত ডিসি সম্মেলনের তারিখ ঠিক আছে।

বিআরটিএতে বৈঠক

বাসে অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের বিষয়ে আজ বুধবার দুপুরে বিআরটিএতে বৈঠক হবে। বৈঠক শেষে সব শর্ত উল্লেখ করে নির্দেশনা জারি হতে পারে। এতে বাস মালিক সংগঠনের নেতারা অংশ নেবেন। এতে ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়টি তুলতে পারে মালিকপক্ষ।

বিআরটিএর চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার বিডি নিউজ ওয়ার্ল্ডকে বলেন, করোনা স্বাস্থ্যবিধি পালনের শর্তগুলো জানাতেই এই বৈঠক।

ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বিডি নিউজ ওয়ার্ল্ডকে বলেন, ‘সরকার যে সিদ্ধান্ত দেবে, আমরা সেটা মেনে নেব। বৈঠকে কী আলোচনা হবে, তা বৈঠকের পর জানানো হবে।’

শনিবার থেকে ট্রেনে অর্ধেক যাত্রী

আগামী শনিবার থেকে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করবে ট্রেন। এর আগ পর্যন্ত অগ্রিম টিকিট বিক্রি হয়ে যাওয়ায় ওই দিন থেকে অর্ধেক আসনে যাত্রী পরিবহনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে।

গতকাল বাংলাদেশ রেলওয়ের উপপরিচালক (টিসি) মো. নাহিদ হাসান খান স্বাক্ষরিত একটি আদেশ জারি করা হয়েছে। এতে জানানো হয়, ৫০ শতাংশের অর্ধেক টিকিট কাউন্টারে ও অর্ধেক টিকিট অনলাইনে বিক্রি করা হবে।

নির্দেশনায় আরো জানানো হয়, আন্ত নগর ট্রেনের স্ট্যান্ডিং টিকিট ও স্টেশনের প্ল্যাটফর্ম টিকিট ইস্যু সম্পূর্ণ বন্ধ থাকবে। কাউন্টারে টিকিট ইস্যু ও ট্রেনে ভ্রমণের ক্ষেত্রে যাত্রীর মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করতে হবে।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button