যুদ্ধ বেধেছে মানুষ পালাচ্ছে!

হ্যাঁ যুদ্ধ বেঁধেছে মানুষ পালাচ্ছে কথাটা শুনে হয়তো অবাক লাগছে। আসলেই এ যেন এক অদৃশ্য শক্তির সাথে মানুষের যুদ্ধ। আজ রাত ৮টা বেজে ৫০ মিনিট, ছবিটা যে চিত্রটি দেখতে পাচ্ছেন এটি হলো নবীনগর বাস স্ট্যান্ডের। কোন ঈদ না পূজা না গতানুগতিক কোন সরকারি ছুটিও না। হ্যাঁ এটি হলো করোনা ছুটি। তবে ছুটি বলা কতটা যৌক্তিক সেটা আমি ভেবে পাচ্ছি না।

ছুটি হলে সাধারণত মানুষ ৫ দিন ১০ দিনের জন্য বাড়িতে যায়। যাবার সময় সাথে থাকে দু একটা ছোট বড় ব্যাগ। কিন্তু আজকের চিত্রটা সম্পূর্ণ আলাদা। মনে হচ্ছে ঢাকা , গাজীপুর , আব্দুল্লাহপুর, নবীনগর এসব এলাকায় যুদ্ধ বেধেছে , মানুষটাই প্রাণের ভয়ে যা কিছু আছে তাই নিয়েই পালাচ্ছে। আমার নিজের চোখকে বিশ্বাস করতে কষ্ট হচ্ছিল! যখন দেখলাম প্রায় প্রতিটা লোক তার বাসার সমস্ত জিনিস চেয়ার টেবিল, খাট, হাড়ি-পাতিল সমস্ত কিছু নিয়ে ছুটছে। কয়েকজনকে জিজ্ঞাসা করলাম আপনারা এভাবে বাড়িতে যাচ্ছেন কেনো? উত্তরে তারা বলল, কি করবো এখানে থেকে? মরতে হয় বাড়িতে গিয়ে পরিবার-পরিজনের সাথে মরবো। আমি বললাম এটা তো ঠিক না, এতেতো মহামারী প্রকট আকার ধারণ করবে। এ প্রশ্নে তারা বিরক্তবোধ প্রকাশ করে এড়িয়ে গেলেন।

আমাদের দেশ কোন দিকে আগাচ্ছে আল্লাহ ভাল জানেন। লকডাউন আগে থেকে ঘোষণা করায় মানুষ ঘরমুখী হচ্ছে।যদি এভাবে চলতে থাকে তাহলে আমাদের মত উন্নয়নশীল দেশ অর্থনৈতিকভাবে, স্বাস্থ্যগতভাবে, শিক্ষাগত দিক দিয়ে চরম হুমকির মুখে পড়বে।

এর থেকে পরিত্রাণের কি কোনো উপায় নাই?

প্রশ্ন হল পালিয়ে যাবেন কোথায়? কেনইবা এ পালানো?
তাহলে তো এটাকে একপ্রকার যুদ্ধই বলা যেতে পারে।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button