শুভ জন্মদিন প্রিয় ভাই সাংবাদিক মোঃশাহাদাত হোসেন।

জনপদের চিন্তাধারার প্রতিনিধি, কণ্ঠস্বর, বিবেকের অনুশাসন হিসেবে কবি, শিল্পী, সাহিত্যিক, সাংবাদিক সৃজনশীল প্রতিটি মানুষই ভূমিকা রাখেন। তেমনি একজন তরুন সাংবাদিক সময়ের সাহসী , সৎ এবং সাহসী সত্য প্রকাশে নির্ভিক সাংবাদিক এবং মোঃ শাহাদাত হোসেন এর শুভ জন্মদিন।দেশের জনপ্রিয় দৈনিক গনকণ্ঠের বেতাগী উপজেলার প্রতিনিধি। একই সাথে তিনি বেতাগগী মূলধারার পেশাদার সাংবাদিকদের বৃহৎ সংগঠন রিপোর্টার ইউনিট এর সাধারন সম্পাদক ।

একজন খ্যাতিমান সাংবাদিক সাংবাদিকতায় তিনি রেখে চলেছেন অগ্রণী ভূমিকা। আমার কলিজার ভাইদের একজন। ছাত্রজীবন থেকে বড় ভাই হিসেবে শ্রদ্ধা করে । তাই ওর সাথে সম্পর্কটা নিজের ভাইয়ের মতো। কি বলে শুভকামনা জানাবো বলো, ভাষা নেই, কারন ফর্মালিটির সম্পর্ক তো তোমার সাথে আমার নয়। তবুও বলি, আজকের এই দিনে অফুরন্ত ভালবাসা ।

অনেক অনেক দোয়া আমাদের সাহস জুগিয়ে সঠিক পথে পরিচালনা করার মতো শক্তি ও আস্থা মহান আল্লাহতায়ালা তোমাকে দান করুক এই প্রার্থনাই করি সব সময়। তোমার পাশেই আছি আমরা রিপোর্টাস ইউনিয়ান পরিবার । যেখানে অন্যায় অত্যাচার, অপরাধ, দুর্নীতি, দুঃশাসন সেখানেই নির্ভীক, সাহসী, এক সাংবাদিকের পদচারণ। যে কোন মূল্যেই তিনি তুলে নিয়ে আসবেন ঘটনার অন্তরালের মূল ঘটনা। অপরাধ ও অপরাধী যত গভীরেই থাকুক না কেন সেখান থেকেই তিনি তার চতুরতা, একনিষ্ঠ কর্মদক্ষতা দিয়ে টেনে বের করেন লুকানো সেইসব অপরাধীদের। তাদের মন্দ কাজের সকল আমলনামা। তুলে ধরেন দেশ ও জাতীর সম্মুখে।

যিনি সত্যর সন্ধানে রত নির্ভীক সাংবাদিক, জীবনে সুখ বিলাস লোভে মোহ ত্যাগের প্রতীক। সহজ সরল জীবন ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে জিহাদি মনোভাব। অপরাধ মুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠার অপ্রতিদন্ধি। অন্যায়ের সাথে কখনোই আপোষ করে না যিনি তিনি আর কেউ নয়। তিনি এ সময়ের প্রতিবাদী সকলের প্রিয়মুখ বুলবুল । আজকের আকাশে অনেক তারা, দিন ছিল সূর্যে ভরা। আজকের জোসনাটা আরও সুন্দর,সন্ধ্যাটা আগুন লাগা। আজকের পৃথিবী তোমার জন্য, ভরে থাকা ভাল লাগা। মুখরিত হবে দিন গানে গানে, আগামীর সম্ভাবনা। আপনি এই দিনে পৃথিবীতে এসেছন তাই শুভেচ্ছা আপনাকে, তাই অনাগত খন হোক আরও সুন্দর উজ্জ্বল দিন কামনায়। ছাত্রজীবন থেকেই বিভিন্ন পত্রিকায় লেখা লেখির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন তিনি। আর সেই থেকেই সাংবাদিকতার হাতেখড়ি । সাংবাদিকতার মত মহান পেশা ছেড়ে অন্য কিছুই চিন্তা বা ভাবনা ভাবতে চান না সাংবাদিক আল আমিন মল্লিক। নর্মতা, বাচন ভঙ্গি, শুদ্ধ উচ্চারণ, উত্তম চারিত্রিক গুণাবলী, ভদ্র, প্রাণবন্ত ও ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন একজন মানুষ।

সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হল তার সৃষ্টিশীলতা বা সঞ্জননই ক্ষমতা, যা হল মৌলিক ভাষিক এককগুলিকে সংযুক্ত করে অসীম সংখ্যক বৈধ বাক্য সৃষ্টির ক্ষমতা, যে বাক্য গুলির অনেক গুলিই হয়ত আজও কেউ বলেনি বা শোনেনি। প্রকাশভঙ্গী নম্র ও কোমল আচরণের মানুষকে সবাই ভালোবাসে, সমীহ করে আর তাই তিনি সকলের কাছে সমান সমাদৃত। ব্যক্তিগত জীবনে আল আমিন মল্লিক অবিবাহিত । সবসময় ইতিবাচক মানসিকতা পোষণ করেন এই সাংবাদিক। অল্প বয়সে এতো এতো সাফল্যের পেছনের সূত্র মনে করেন ‘ইতিবাচক থাকা’কে। প্রগতিশীল চিন্তা ও চেতনার একজন মানুষ দেশকে নিয়ে প্রচন্ড আশাবাদী তিনি। সমৃদ্ধ এবং উন্নত এক দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেন ভাইটি। হ্যাঁ আজ আমাদের সেই উজ্জীবিত সৃষ্টিশীল প্রিয় বড় ভাইটির জন্মদিন। জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা, অভিনন্দন ও ভালোবাসা। আরও সহস্র বছর বেঁচে থেকে যেন মহৎকর্মগুলোকে এগিয়ে নিতে পারো সেই প্রার্থনাই করি।

এ জাতীয় আরও সংবাদ

Back to top button